বৃহস্পতিবার, অক্টোবর ৬, ২০২২

Close

Home জাতীয় অসহায় পানিতে বন্যার্তদের হাহাকার

অসহায় পানিতে বন্যার্তদের হাহাকার

বানের জলে ভাসছে মানুষ। ভয়ঙ্কর রূপে তলিয়ে যাচ্ছে সিলেট, সুনামগঞ্জ। অবর্ণনীয় দুর্দশার মধ্যে লাখ লাখ বাসিন্দা। ঘরে-বাইরে পানি। খাবার নেই, বিদ্যুৎ নেই। যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন দুর্গত এলাকায়; অনাহারে-উপবাসে চারদিকে শুধু হাহাকার।

স্মরণকালের ভয়াবহ বন্যায় তছনছ জনপদ। পানির নিচে সিলেট-কোম্পানিগঞ্জ-ভোলাগঞ্জ মহাসড়ক। জীবন বাঁচাতে ঝুঁকি নিয়েই এ সড়কেই চলাচল করছে যানবাহন। ঘটছে দুর্ঘটনাও। ঘরে বাইরে সবখানে পানি। সিলেটের ১৩ উপজেলার মধ্যে ভারতের সীমান্তবর্তী ৫ উপজেলার লাখ লাখ মানুষও পানিবন্দি।

এদিকে কোলের শিশু, পরিবারের অসুস্থ বাবা-মা নিয়ে অসহায় অবস্থা ভানভাসিদের। তাদের উদ্ধার করে নিরাপদ আশ্রয়ে নিয়ে যাচ্ছেন সেনাবাহিনীর সদস্যরা।

কোম্পানিগঞ্জ উপজেলায় থাকার জায়গা নেই, খাবার নেই। ভবনের ছাদে আশ্রয় নিয়েছে গবাদি পশু। নিরাপদ আশ্রয়ের খোঁজে ছুটছেন বানভাসিরা। নৌকায় করে আশ্রয় কেন্দ্রে আসছেন অনেকেই। অসুস্থ-বৃদ্ধ মানুষকে তুলে নিয়ে আনা হচ্ছে আশ্রয় কেন্দ্রে।

কারো জায়গা হয়েছে আশ্রয় কেন্দ্রে, আবার অনেকে কোমর পানিতে দিনযাপন করছেন। অবর্ণনীয় দুর্দশা দুর্গত এলাকার মানুষের। বিদ্যুৎ নেই, নেই মোবাইল নেটওয়ার্ক। যোগাযোগ ব্যবস্থাও ভেঙে পড়েছে।

বন্যাকবলিতদের উদ্ধারে কাজ করছে সেনাবাহিনী। দুর্গত এলাকা থেকে উদ্ধার করে নিয়ে আসা হচ্ছে বঙ্গবন্ধু হাইটেক পার্কের আশ্রয়কেন্দ্রে।

বানভাসিরা জানান, অনাহারে-অর্ধাহারে দিন কাটছে। চারদিকে পানির কারণে রান্না-বান্না বন্ধ রয়েছে।

সিলেটের বিভাগীয় কমিশনার মুহাম্মদ মোশাররফ হোসেন জানিয়েছেন, সিলেট, সুনামগঞ্জ ও হবিগঞ্জসহ ১২ জেলায় বন্যা পরিস্থিতি সবচেয়ে খারাপ। এসব এলাকায় আমরা সবচেয়ে বেশি গুরুত্ব দিচ্ছি। সেনাবাহিনী ও নৌবাহিনী মোতায়েন করা হয়েছে।

পাহাড়ি ঢল আর টানা বৃষ্টিতে বিপর্যস্ত জনজীবন। ১৪ জুন থেকে সিলেট ও সুনামগঞ্জের ৪০ লাখ মানুষ পানিবন্দি অবস্থায় মানবেতর দিন কাটাচ্ছেন।

আপনার মন্তব্য দিন

আপনার মন্তব্য লিখুন!
এখানে আপনার নাম লিখুন

- Advertisment -
  • সর্বশেষ
  • আলোচিত

সাম্প্রতিক মন্তব্য

স্বঘোষিত মহাপুরুষ on লকডাউন বাড়লো আরও একসপ্তাহ
জান্নাতুল ফেরদৌস on চিরবিদায় কিংবদন্তি কবরীর