মঙ্গলবার, জানুয়ারী ২৫, ২০২২

Close

Home শিক্ষাঙ্গন এসএসসি পরীক্ষা নিয়ে সমালোচনায় শিক্ষা গবেষকরা

এসএসসি পরীক্ষা নিয়ে সমালোচনায় শিক্ষা গবেষকরা

২০০৯ সাল থেকেই ফ্রেব্রুয়ারির শুরুতে এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষা আয়োজনের রেওয়াজ। করোনার বিধিনিষেধের আগে গত বছরও সময়মতই শুরু হয় এই পাবলিক পরীক্ষা। কিন্তু করোনায় ছেদ পড়লো একযুগের নিয়মে। মহামারিকালে বছরের শুরুর পরীক্ষা সাড়ে ৯ মাস পিছিয়ে নেয়া হচ্ছে নভেম্বরের মাঝে।

করোনার হাওয়ায় বদল এসেছে, আয়োজনেও। পরীক্ষা হবে কম সময়ে; কঠোর স্বাস্থ্যবিধি মেনে। হবে না আবশ্যিক এবং চতুর্থ বিষয়ের পরীক্ষা।

বিজ্ঞান বিভাগের পরীক্ষার্থীরা অংশ নেবেন পদার্থ, রসায়ন, জীববিজ্ঞান বা উচ্চতর গণিতে। মানবিকে পরীক্ষা হবে বাংলাদেশের ইতিহাস ও বিশ্ব সভ্যতা, ভুগোল ও পরিবেশ এবং অর্থনীতি বা পৌরনীতি ও নাগরিকতার। আর ব্যবসায় শিক্ষায় ব্যবসায় উদ্যোগ, হিসাব বিজ্ঞান এবং ফিন্যান্স ও ব্যাংকিং বিষয়ের পরীক্ষা হবে। বদল এসেছে নম্বর বিভাজনেও।

বিজ্ঞান বিভাগে রচনামূলক ৮টির মধ্যে উত্তর দিতে হবে মাত্র দুই প্রশ্নের। যার নম্বর হবে ১০ করে। আর ২৫টি এমসিকিউ-এর মধ্যে ১২টির উত্তর দিতে হবে। তবে খাতা দেখার সময় রচনামূলকের ২০ নম্বরকে ৫০ এবং এমসিকিউয়ের ১২ নম্বরকে ২৫শে রুপান্তর করবে বোর্ড।

আরও পড়ুন: কাল থেকে শুরু হচ্ছে এসএসসি পরীক্ষা (ভিডিও)

বাণিজ্য ও মানবিক বিভাগের ১১টি রচনামূলকের মধ্যে ৩টি উত্তর দেবেন পরীক্ষার্থীরা। প্রতি প্রশ্নের মান এখানেও ১০ করে। আর ৩০ এমসিকিউয়ের মধ্যে ১৫টির উত্তর দেবেন এই দুই বিভাগের পরীক্ষার্থীরা। যেখানে লিখিতর ৩০কে ৭০ এবং এমসিকিউএর ১৫কে ৩০শে রুপান্তর করে প্রাপ্ত নম্বর নির্ধারণ করবে বোর্ড। এরসঙ্গে ২৮ নভেম্বরের মধ্যে ব্যবহারিকের ২৫ নম্বর বোর্ডকে জানাবে স্কুল।

আন্তঃবোর্ড সমন্বয় উপকমিটির সভাপতি অধ্যাপক নেহাল আহমেদ জানান, যে যে বিষয়ে পরীক্ষা নেয়া হবে সেগুলো কনভার্ট করা হবে ১০০ নম্বরে। পরীক্ষা শেষে শিক্ষার্থীরা ১০০ নম্বরের সার্টিফিকেট বা নম্বরপত্র পাবে।

আর করোনার মাঝে এ আয়োজনের প্রশংসা করলেও মাত্র তিন বিষয়ের পরীক্ষার সমালোচনা করছেন শিক্ষা গবেষকরা। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষা ও গবেষণা ইনস্টিটিউটের সহযোগী অধ্যাপক মো. মুজিবুর

আপনার মন্তব্য দিন

আপনার মন্তব্য লিখুন!
এখানে আপনার নাম লিখুন

- Advertisment -
  • সর্বশেষ
  • আলোচিত

সাম্প্রতিক মন্তব্য

স্বঘোষিত মহাপুরুষ on লকডাউন বাড়লো আরও একসপ্তাহ
জান্নাতুল ফেরদৌস on চিরবিদায় কিংবদন্তি কবরীর