শনিবার, অক্টোবর ১৬, ২০২১

Close

Home লাইফস্টাইল খুশকি থেকে মুক্তি পান ৭ ঘরোয়া সমাধানে

খুশকি থেকে মুক্তি পান ৭ ঘরোয়া সমাধানে

নারী-পুরুষ নির্বিশেষে খুশকি সমস্যায় ভুগে থাকেন কম-বেশি সকলেই। সামনেই শীতকাল। এ সময় মাথার ত্বক শুষ্ক থাকে বলে খুশকির প্রবণতা বৃদ্ধি পায়। খুশকি একবার মাথার ত্বকে আক্রমণ শুরু করলে, তা বাড়তেই থাকে। অ্যান্টি-ড্যানড্রফ শ্যাম্পু দিয়েও খুশকি দূর করা যায় না। তবে নানা প্রাকৃতিক উপাদান ব্যবহার করে ঘরে বসেই খুশকির সমস্যা নিয়ন্ত্রণ করা সম্ভব। জেনে নেয়া যাক খুশকি থেকে মুক্তি পাওয়ার তেমনি কয়েকটি ঘরোয়া সমাধান।

১) অলিভ অয়েল
শরীরের ভেতর এবং বাহির- দুই ক্ষেত্রেই অলিভ অয়েলের ব্যবহার শরীরকে রোগ-বালাই থেকে মুক্ত রাখে। বিশ্বজুড়েই খুশকির সমস্যা দূর করতে জলপাই তেল বা অলিভ অয়েলের ব্যবহার খুবই জনপ্রিয়। জলপাই তেল প্রাকৃতিকভাবেই ভালো ময়েশ্চারাইজার এবং ক্লিনজার হিসেবে কাজ করে বা ত্বকের আর্দ্রতা ও পরিচ্ছন্নতা নিশ্চিত করে। তাই নিয়মিত জলপাই তেল ব্যবহার করলে খুশকির সমস্যা অনেকটাই কমে যাবে।

২) কর্পূর ও নারকেল তেল
নারকেল তেল ও কর্পূ‌রের তেলের মিশ্রণ আপনাকে খুশকির সমস্যা থেকে দূরে রাখতে পারে। দু’টো তেলই নানা ভেষজ গুণে সমৃদ্ধ। আধা কাপ নারকেল তেলের মধ্যে এক চা-চামচ কর্পূ‌রের তেল নিয়ে একটা বোতল বা পাত্রে নিয়ে ভালোভাবে ঢেকে দিন। সতর্ক থাখতে হবে যাতে বোতল বা পাত্রের ভেতরে বাতাস না ঢোকে। শুষ্ক স্থানে এভাবে রাখা পাত্র থেকে কিছুটা তেল নিয়ে প্রতিরাতে ঘুমাতে যাওয়ার আগে মাথায় দিন। মিনিট দশেক ধরে ঘষে ঘষে চুলের গোড়ায় মাখুন। সকালে ভালো করে ধুয়ে ফেলুন। এভাবে টানা দুই সপ্তাহ ব্যবহার করে উপকার পেলে ধীরে ধীরে এটা একদিন পর পর মাখুন বা আরও কমিয়ে দিন।

৩) অ্যাপল সাইডার ভিনেগার
খুশকির সমস্যা থেকে বাঁচতে অ্যাপল সাইডার ভিনেগার ব্যবহার করতে পারেন। সমপরিমাণ ভিনেগার ও পানি একসঙ্গে মিশিয়ে মাথার ত্বকে মালিশ করুন। ১৫ মিনিট অপেক্ষা করে তা ধুয়ে ফেলুন। সপ্তাহে দুবারের বেশি এটা ব্যবহার করা যাবে না।

৪) লেবুর রস
লেবুর রস ব্যবহার করে খুশকির সমস্যা দূর করতে পারেন। দুই টেবিল-চামচ লেবুর রস নিয়ে পুরো মাথায় চুলের গোড়ায় ঘষে ঘষে মাখুন। পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। এবার এক টেবিল-চামচ লেবুর রস নিয়ে এক কাপ পানিতে মেশান। লেবুর রস মেশানো পানি দিয়ে মাথা ধুয়ে ফেলুন। খুশকি না কমা পর্যন্ত প্রতিদিন এভাবে লেবু চিকিৎসা চালিয়ে দেখতে পারেন।

৫) অ্যালোভেরা
খুশকি হলে মাথায় চুলকানো বেড়ে যায়। এ অবস্থায় মাথায় অ্যালোভেরার রস ব্যবহার করলে দারুণ আরাম পাওয়া যাবে। খুশকির জ্বালায় দিনরাত চুলকানো থেকে খানিকটা মুক্তিও দেবে ঘৃতকুমারীর রস। এই উদ্ভিদ রসের সমৃদ্ধ উপাদানগুলো আপনার ত্বকের অনেক সমস্যাই দূর করবে।

৬) মেথি-তেল
সাধারণ নারকেল তেলের সঙ্গে মেথি মিশিয়ে কয়েকদিন বোতলে রেখে দিন। নিয়মিত এই মেথি মেশানো তেল মাখুন মাথায়। রাতে মেখে সকালে ধুয়ে ফেলুন। এভাবে নিয়মিত ব্যবহারে মাথার চুল ও ত্বক দুইই ভালো থাকবে। খুশকি থেকেও রেহাই পাবেন।

৭) গ্রিন টি
গ্রিন টি-তে রয়েছে অ্যান্টি-ব্যাক্টেরিয়াল উপাদান। মাথার ত্বকের স্বাস্থ্য ভালো রাখতে সহায়তা করে এটি। তাই খুশকি কমাতে গ্রিন টি ব্যবহার করতে পারেন। এক কাপ গরম পানিতে দুটো টি ব্যাগ ২০ মিনিট ধরে ডুবিয়ে রাখুন। ঠাণ্ডা হয়ে এলে মাথার ত্বকে ব্যবহার করে ৩০ মিনিট অপেক্ষা করুন। এর পর ঠাণ্ডা পানি দিয়ে চুল ধুয়ে ফেলুন।

আপনার মন্তব্য দিন

আপনার মন্তব্য লিখুন!
এখানে আপনার নাম লিখুন

- Advertisment -
  • সর্বশেষ
  • আলোচিত

সাম্প্রতিক মন্তব্য

স্বঘোষিত মহাপুরুষ on লকডাউন বাড়লো আরও একসপ্তাহ
জান্নাতুল ফেরদৌস on চিরবিদায় কিংবদন্তি কবরীর