Home এক্সক্লুসিভ ট্রেনের ভাড়া নিয়ে কি বললেন রেলমন্ত্রী?

ট্রেনের ভাড়া নিয়ে কি বললেন রেলমন্ত্রী?

ট্রেনের ভাড়া নিয়ে কি বললেন রেলমন্ত্রী?
রেলমন্ত্রী নূরুল ইসলাম সুজন

ডিজেলের দাম বাড়লেও আপাতত ট্রেনের ভাড়া বাড়ানোর পরিকল্পনা নেই বলে জানিয়েছেন রেলমন্ত্রী নূরুল ইসলাম সুজন। শনিবার সকালে রাজধানীর কমলাপুরে এ কথা জানান তিনি।

এসময় রেলমন্ত্রী বলেন, “ট্রেন হচ্ছে জন সাধারণের বাহন। তাই জ্বালানি তেলের দাম বাড়লেও ট্রেনের টিকিটের দাম বাড়ানো হবে না। ট্রেন চালানো হচ্ছে ভর্তুকি দিয়ে। তাই আপাতত আগের ভাড়াই বহাল রাখা হবে”।

ডিজেলের দাম সরকার লিটারে ১৫ টাকা করে বাড়িয়েছে। ফলে রেল পরিচালনায় সরকারের ভর্তুকি বাড়বে। রেলমন্ত্রী বলেন, “আপনারা জানেন জনগণ বা সরকারের ভর্তুকির মাধ্যমেই ট্রেন চলছে। রেলওয়েকে অনেক ভর্তুকি দিতে হয়। ১০ টাকার জায়গায় হয়ত এখন ১২ টাকা ভর্তুকি দেওয়া লাগবে। যে কারণে আমাদের দিক থেকে ভাড়া বাড়ানোর কোনো সিদ্ধান্ত নিইনি।”

পরে রেলমন্ত্রী জানান, করোনার কারণে স্ট্যান্ডিং টিকিট বিক্রি বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। এখন থেকে আর স্ট্যান্ডিং টিকিট বিক্রি করা হবে না।

এদিকে হেফাজতের হামলার পর দীর্ঘ আট মাস বন্ধ থাকা ব্রাহ্মণবাড়িয়া রেলস্টেশন আজ থেকে আবারো চালু হয়েছে। কমলাপুরের এই অনুষ্ঠানে ব্রাহ্মণবাড়িয়া রেল স্টেশনের কার্যক্রম পুনরায় উদ্বোধন করেন রেলপথমন্ত্রী সুজন।

গত মার্চে স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীর অনুষ্ঠানে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর বাংলাদেশে আসাকে কেন্দ্র হেফাজতের তাণ্ডবে ব্রাহ্মণবাড়িয়া রেল স্টেশন ক্ষতিগ্রস্ত হলে স্টেশনটি বন্ধ করে দেওয়া হয়েছিল। সিলেট ও চট্টগ্রামসহ বিভিন্ন রুটের সাত জোড়া ট্রেন যাত্রা বিরতি করবে এ স্টেশনে।

অনুষ্ঠানে ক্ষয়ক্ষতির হিসাব তুলে ধরে মন্ত্রী বলেন, গত ২৬ মার্চ ব্রাহ্মণবাড়িয়া স্টেশনে কর্তব্যরত স্টেশনমাস্টারের রুম, অপারেটিং রুম, ভিআইপি রুম, প্রধান বুকিং সহকারীর রুম,টিকেট কাউন্টার,প্যানেল বোর্ড, সিগনালিং যন্ত্রপাতি, পয়েন্টের সিগন্যাল বক্সসহ লেভেল ক্রসিং গেটসহ অন্যান্য স্থাপনা ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগ করা হয়েছিল।

“এ ঘটনায় বাংলাদেশ রেলওয়ের আড়াই কোটি টাকা ক্ষতি হয়েছে। আর স্টেশনটিকে সারিয়ে তুলতে খরচ হয়েছে আরও সাড়ে তিন কোটি টাকা।”

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here