শনিবার, অক্টোবর ১৬, ২০২১

Close

Home এক্সক্লুসিভ দেউলিয়া সেজে সটকে পড়তে চেয়েছিলেন ইভ্যালির রাসেল

দেউলিয়া সেজে সটকে পড়তে চেয়েছিলেন ইভ্যালির রাসেল

প্রতারণা মামলায় তিনদিন করে রিমান্ডে পাঠানো হয়েছে ইভ্যালির কর্ণধার ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ রাসেল এবং প্রতিষ্ঠানটির চেয়ারম্যান, তার স্ত্রী শামিমা নাসরিনকে। এর আগে সংবাদ সম্মেলনে র‍্যাব জানায়, পণ্য ও টাকা ফেরত না দিতে পারলে পরিকল্পনা করেছিলেন ইভ্যালিকে দেউলিয়া ঘোষণা করার। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে রাসেল জানান, নানা প্রলোভনে গ্রাহক টেনেছে ইভ্যালি। বর্তমানে প্রতিষ্ঠানটির দায় হাজার কোটি টাকার উপরে।

ইভ্যালির চেয়ারম্যান নাসরিন ও সিইও রাসেল র‍্যাবের হাতে গ্রেপ্তারের পর দিচ্ছেন চাঞ্চল্যকর তথ্য।

গ্রেপ্তারের ১৯ ঘণ্টা পর র‍্যাব হেডকোয়াটারে আনুষ্ঠানিক সংবাদ সম্মেলন করে র‍্যাব। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে রাসেল জানান, পণ্য ও টাকা ফেরত না দিতে পারলে পরিকল্পনা করেছিলেন ইভ্যালিকে দেউলিয়া ঘোষণা করার। এ সময় রাসেল স্বীকার করে বর্তমানে প্রতিষ্ঠানটির দায় রয়েছে হাজার কোটি টাকার উপরে। অথচ তার ব্যাংক হিসাবে রয়েছে মাত্র ৩০ লাখ টাকা।

কোনও পুঁজি ছাড়া প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা কর্মচারিদের বেতন দিতেন গ্রাহকের টাকা দিয়েই। এমনকি এই গ্রাহকের টাকায় দুইজন প্রতিমাসে নিতেন ১০ লাখ টাকা, কোটি টাকার গাড়িতে করতেন চলাফেরা। র‍্যাবের কাছে নাসরিন ও রাসেল শিকার করেছেন পণ্যদিতে গ্রাহকের কাছে সময় নেয়াটা ছিল অপকৌশলের একটি অংশ। আরও বেশি সময় দেয়া হলে সাধারন মানুষ আরও প্রতারিত হত।

র‍্যাবের কাছে রাসেল পরিকল্পনার অংশ হিসাবে জানায় তিন বছর পূর্ণ হলে শেয়ার মার্কেটে অন্তর্ভূক্ত হয়ে টাকা তুলে নেয়ার পরিকল্পনা ছিল। গ্রেপ্তারের পর গ্রাহকরা টাকা কিভাবে ফেরত পাবে এই প্রশ্নের জবাবে খন্দকার মইন জানান, এই বিষয়টি নিয়ে সরকারের বেশ কয়েকটি সংস্থা কাজ করছে।

সংবাদ সম্মেলন শেষে রাসেল ও নাসরিনকে গুলশান থানা পুলিশের কাছে হস্তান্তর করে র‍্যাব। ১০ দিনের রিমাড চেয়ে আদালতে নেয়া হলে ২জনকে ৩ দিনের রিমান্ড মন্জুর করে আদালত।

আপনার মন্তব্য দিন

আপনার মন্তব্য লিখুন!
এখানে আপনার নাম লিখুন

- Advertisment -
  • সর্বশেষ
  • আলোচিত

সাম্প্রতিক মন্তব্য

স্বঘোষিত মহাপুরুষ on লকডাউন বাড়লো আরও একসপ্তাহ
জান্নাতুল ফেরদৌস on চিরবিদায় কিংবদন্তি কবরীর