শনিবার, অক্টোবর ১৬, ২০২১

Close

Home মতামত খোলা কলাম মিথ্যা বলি? না আমাকে বলতে বাধ্য করা হয়

মিথ্যা বলি? না আমাকে বলতে বাধ্য করা হয়

চাকুরীর বদৌলতে অনেক বিদেশীদের সাথে কাজ করতে গিয়ে দেখেছি মিথ্যে বলার অভ্যেস তাদের একেবারেই নেই- বিশেষ করে ইঊরোপবাসীর। একটা বিশেষ বৈশিষ্ট্য লক্ষ্য করেছি- অবলীলায় তারা ‘নো’ এবং ‘সরি’ বলতে পারে। কোনভাবেই একান্ত ব্যক্তিগত বিষয় নিয়ে কেউ কথা বলুক তা পছন্দ করে না এবং অন্য কারও সম্পর্কে জানতেও চায় না। আমাদের ভাষায়- তারা খুবই প্রফেশনাল বা কারো প্রাইভেসিতে ইন্টারফেয়ার করেনা। প্রাইভেসিকে তারা সম্মান করে। আর এটাই আমার মনে হয়েছে মিথ্যে না বলা অথবা কম মিথ্যে বলার মূল চাবিকাঠি।

আর আমরা সাধারণত ব্যক্তিগত আলোচনা করতেই বেশি পছন্দ করি যার অনেক উত্তর দেয়া বিব্রতকর। তাই না বলতে পারিনা বলেই- হয় উত্তর এড়িয়ে চলি অথবা মিথ্যে বলি। আমরা নাছোড়বান্দা উত্তর জানতেই হবে -তার ধারাবাহিকতায় একের পর এক মিথ্যে কথা বলার প্রতিযোগিতা। ফলাফল পরস্পরের প্রতি অবিশ্বাস এবং সম্পর্কেরও চরম অবনতি।

কারও সাথে দেখা হলে প্রায় সবাই জিজ্ঞেস করি- কেমন আছ বা আছেন? তারা ভাল থাকুক বা না থাকুক, ‘ভাল আছি’ এই উত্তরই সবাই আশা করি এবং নিজের অজান্তেই তাদের কাছ থেকে মিথ্যে শুনতে চাই অথবা মিথ্যে কথা বলাতে বাধ্য করি।

বাচ্চাদের ক্ষেত্রেও আমরা আরও অসেচতন। নিজে সত্য মিথ্যা যাই বলি না কেন বাচ্চাদের মিথ্যে বলা কেউ মানতে পারেনা। আর বাচ্চারা তা ভাল করেই বুঝে। কিন্তু তারা বাবা-মা’র অযাচিত প্রশ্নের কারণে তাদের বাবা-মা’র সাথে মিথ্যে বলার প্রয়োজন হয় বেশী। প্রায়শঃই বাবা-মা প্রশ্ন করে খেয়েছ কী? করেছ কী? যা তাদের জন্য একেবারেই অবান্তর অথবা মোবাইল ফোনে জিজ্ঞেস করেন এখন কোথায়? কার সাথে আছ? বাবা-মা’র সন্তষ্টির জন্য যা বলতে হয় বাচ্চারা তাই বলে। তাই বাবা-মা’র উচিত এমন কোন প্রশ্ন না করা যাতে সন্তানরা মিথ্যে বলতে বাধ্য হয়।

প্রশ্ন করার ক্ষেত্রে একটু সচেতন হলেই অনেক মিথ্যে এড়ানো সম্ভব। যা সত্যিকার অর্থে জানতে চাই এবং কেউ বিব্রত হবে এমন প্রশ্ন না করাই উত্তম। উত্তর দেবার ক্ষেত্রেও কৌশুলি হওয়া দরকার এবং সবিনয় বিদেশীদের মত বলা অভ্যাস করা দরকার। প্রথমদিকে হয়ত অনেকে থমকে যাবে, তবে একবার আপনার অভ্যেস বুঝতে পারলে পরবর্তীতে আর কোন সমস্যা হবেনা। মিথ্যে বলার আর কোন প্রয়োজনই হবেনা।

লেখক: আবু মহসীন, উন্নয়নকর্মী

(এ বিভাগে প্রকাশিত মতামত লেখকের নিজস্ব। দ্য ডেলটা মেইল এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে প্রকাশিত মতামত সামঞ্জস্যপূর্ণ নাও হতে পারে। মত প্রকাশের স্বাধীনতার সার্বজনীন নীতির উপর ভিত্তি করে এ লেখা প্রকাশিত হয়েছে তবে লেখকের মতামতের কোনো প্রকার দায়ভার দ্য ডেলটা মেইল নিবে না।)

আপনার মন্তব্য দিন

আপনার মন্তব্য লিখুন!
এখানে আপনার নাম লিখুন

- Advertisment -
  • সর্বশেষ
  • আলোচিত

সাম্প্রতিক মন্তব্য

স্বঘোষিত মহাপুরুষ on লকডাউন বাড়লো আরও একসপ্তাহ
জান্নাতুল ফেরদৌস on চিরবিদায় কিংবদন্তি কবরীর