বৃহস্পতিবার, অক্টোবর ৬, ২০২২

Close

Home বিশেষ খবর রংপুর মেডিকেলে একসঙ্গে চার সন্তানের জন্ম দিলেন মা

রংপুর মেডিকেলে একসঙ্গে চার সন্তানের জন্ম দিলেন মা

রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে একসঙ্গে চার সন্তানের জন্ম দিয়েছেন এক মা। এর মধ্যে তিনজন পুত্র এবং একজন কন্যা সন্তান। বর্তমানে চারজনই ভালো থাকলেও মায়ের অতিরিক্ত রক্তক্ষরণ হয়েছে।

কুড়িগ্রাম সদর উপজেলার মনিরুজ্জামান বাঁধন এবং আশা বেগম দম্পতির ঘরে এসেছে চার সন্তান। অবশ্য আগে থেকেই বিষয়টি জানতেন তারা। সাহস নিয়ে চার সন্তানকে জন্ম দিতে মাসখানেক আগে রংপুরে একটি বাসা ভাড়া নিয়ে চিকিৎসা করাতে থাকেন। মঙ্গলবার (২২ মার্চ) রাত নয়টা ৪০ মিনিটে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের গাইনি বিভাগে সিজারের মাধ্যমে সম্পূর্ণ সুস্থ ৪ সন্তানের জন্ম দেন মা আশা বেগম। ৩ পুত্র ও এক কন্যা সন্তান ভালো থাকলেও রক্তক্ষরণ বেশি হওয়ায় মাকে পোস্ট অপারেটিভ ওয়ার্ডে রাখা হয়েছে।

রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের শিশু ওয়ার্ডের নার্স অনিকা ইয়াসমিন জানান, সন্তান চারজনই ভালো আছে। আমরা সব ধরনের সেবা নিশ্চিত করার জন্য কাজ করছি।

হাসপাতালটির কর্তব্যরত ইমার্জেন্সি মেডিকেল অফিসার তাহসিনা বিনতে আবেদ জানান, মা আশা বেগমের অতিরিক্ত রক্তক্ষরণ হয়েছে। এ কারণে তাকে পোস্ট অপারেটিভ ওয়ার্ডে অবজারভেশনে রাখা হয়েছ হয়েছে। ২৪ ঘণ্টা পর তার শরীরের অবস্থা সম্পর্কে বলা যাবে। বাচ্চারা ভালো আছে। আশা করি মা-ও ভালো থাকবেন। একসাথে চার সন্তানের সিজারের বিষয়টি চ্যালেঞ্জ ছিল। আমাদের চিকিৎসকরা সেটি সুন্দরভাবে করতে পেরেছেন।

শিশু বিভাগে নার্সদের পাশাপাশি চার সন্তানের দেখাশোনা করছেন বাবা এবং দাদি। একসাথে চার সন্তানকে পেয়ে ভীষণ খুশি তারা। মা এবং সন্তান ভালোভাবে সুস্থ থেকে বেড়ে উঠুক এই প্রত্যাশা তাদের।

বাবা মোহাম্মদ মনিরুজ্জামান বাঁধন জানান, আমরা ‌আল্ট্রাসনোগ্রামের মাধ্যমে জানতে পারি আমার স্ত্রী আশা বেগমের গর্ভে একসাথে চার সন্তান রয়েছে। রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ডাক্তার ফৌজিয়া ম্যাডামের অধীনে চিকিৎসা নেই। সন্তান ডেলিভারির দিন এগিয়ে আসায় গত একমাস আগে আমি আমার স্ত্রীকে নিয়ে রংপুরে বাড়ি ভাড়া নেই এবং চিকিৎসকের নিবিড় তত্ত্বাবধানে থাকি। তাদের পরামর্শে মঙ্গলবার হাসপাতালে ভর্তি করি এবং রাত ৯টা ৪০ মিনিটে আমার স্ত্রী একসাথে তিন পুত্র এবং এক কন্যার জন্ম দেন। আমার সন্তানদের এবং ওদের মায়ের জন্য দোয়া করবেন। পাশাপাশি সুচিকিৎসা নিশ্চিত করারও দাবি জানান তিনি।

মনিরুজ্জামান ঠাকুরগাঁও পল্লী বিদ্যুৎ অফিসে চাকরি করেন। চার সন্তানকে দেখতে শিশু ওয়ার্ডে ভিড় জমিয়েছেন হাসপাতালের বিভিন্ন ওয়ার্ডের রোগী এবং অভিভাবকরা। তাদের প্রত্যাশা, সুস্থ ও সুন্দরভাবে বেড়ে উঠুক চারজন। এজন্য সঠিক চিকিৎসাসেবা দেয়ার দাবিও তাদের। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, এর আগে একসাথে ৩ জনের জন্মগ্রহণের রেকর্ড আছে।

-বাংলানিউজ২৪

আপনার মন্তব্য দিন

আপনার মন্তব্য লিখুন!
এখানে আপনার নাম লিখুন

- Advertisment -
  • সর্বশেষ
  • আলোচিত

সাম্প্রতিক মন্তব্য

স্বঘোষিত মহাপুরুষ on লকডাউন বাড়লো আরও একসপ্তাহ
জান্নাতুল ফেরদৌস on চিরবিদায় কিংবদন্তি কবরীর